০৫৪২৩-৭৫১৫৭,০৫৪২৩-৭৫১৫৮

mayor.gobipoura@gmail.com

মত বিনিময় সভা

মত বিনিময় সভা

Welcome to Gobindagonj Pourashava

Gobindagonj Pourashava | গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভা,গাইবান্ধা

গাইবান্ধা জেলাধীন গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভা একটি জনবহুল ব্যবসা প্রধান এলাকা। এছাড়াও দেশের উত্তরাঞ্চলের বৃহত্তর রংপুর দিনাজপুর সহ আটটি জেলার প্রবেশদ্বার এই গোবিন্দগঞ্জ মুলত এর ভৌগলিক ও ব্যবসায়িক গুরুত্ব অনুধাবন করে সরকার ১৯৯৮ইং সালে ২৫শে আগষ্ট এই পল্লী এলাকাকে শহর এলাকা ঘোষনা পূবক পৌরসভা প্রতিষ্ঠা করেন। প্রাচীনকালে করোতয়া নদীর তীরে যে বানিজ্যিক কেন্দ্র গড়ে ওঠে তা মোঘল আমলে "গঞ্জ" হিসাবে প্রসিদ্ধ লাভ করে। আর এই "গঞ্জ" শব্দটিকে উত্তর জনপদের পৌন্ড্রবধন রাজ্যের শেষ রাজা গোবিন্দ নামের সাথে যুক্ত করে এই এলাকার নামকরণ করা হয় গোবিন্দগঞ্জ। গাইবান্ধা জেলাধীন গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভা একটি জনবহুল ব্যবসা প্রধান এলাকা। এছাড়াও দেশের উত্তরাঞ্চলের বৃহত্তর রংপুর দিনাজপুর সহ আটটি জেলার প্রবেশদ্বার এই গোবিন্দগঞ্জ মুলত এর ভৌগলিক ও ব্যবসায়িক গুরুত্ব অনুধাবন করে সরকার ১৯৯৮ইং সালে ২৫শে আগষ্ট এই পল্লী এলাকাকে শহর এলাকা ঘোষনা পূবক পৌরসভা প্রতিষ্ঠা করেন। প্রাচীনকালে করোতয়া নদীর তীরে যে বানিজ্যিক কেন্দ্র গড়ে ওঠে তা মোঘল আমলে "গঞ্জ" হিসাবে প্রসিদ্ধ লাভ করে। আর এই "গঞ্জ" শব্দটিকে উত্তর জনপদের পৌন্ড্রবধন রাজ্যের শেষ রাজা গোবিন্দ নামের সাথে যুক্ত করে এই এলাকার নামকরণ করা হয় গোবিন্দগঞ্জ।

গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার উন্নয়ন চিত্র:


উত্তর অঞ্চলের প্রবেশদ্বার গোবিন্দগঞ্জ শহর যোগাযোগ ও ব্যাবসা বানিজ্য এবং শিক্ষা সংস্কৃতি অঙ্গনে নিজ অবস্থান সু-প্রতিষ্ঠিত করেছে। রাজা গোবিন্দ এর শাসনামল থেকেই অত্র অঞ্চলে উন্নত জনপদের ক্রম বধিষু অগ্রযাত্রা পরবর্তীতে বৃটিশ শাসনামলের নীল কুঠির কালো থাকায় স্তিমিত হলেও বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর যোগ্য উত্তরসূরী জননেত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সু-দৃষ্টিতে আবারও উন্নয়নের মহাসড়কে ধার্বিত এই অবহেলিত এলাকা। বগুড়া শহর থেকে ৩৩ কিলোমিটার এবং রংপুর থেকে ৭৪ কিলোমিটার দুরে দেশের উত্তর প্রান কেন্দ্রে অবস্থিত গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার আয়তন ১২.৭১ কিলোমিটার, জনসংখ্যা ৩৮,৪১৫ জন। এই পৌরসভার জন্মকাল ২৫ আগষ্ট ১৯৯৮ ইং হলেও পৌর নাগরিক সেবার মান ও আয় বৃদ্ধির ফলে অতি দ্রুত তৎকালীন চেয়ারম্যান ও বতমান মেয়র মোঃ আতাউর রহমান সরকার এর সর্বাত্তক প্রচেস্টায় ২০১৪ সালে প্রথম শ্রেনীতে উন্নতি হয়েছে। বতমানে পৌরসভার হোল্ডিং সংখ্যা-৯৭১৮ টি, আদমশুমারী জরিপ অনুযায়ী পুরুষ-১৯৩৬২, নারী-১৯০৫৩ জন, ওয়াড নং- ৯টি,পোষ্ট অফিস-২টি, উপজেলা অফিস-১টি, ভূমি অফিস-১টি, খাবার হোটেল-২২টি, আবাসিক হোটেল-৪টি, পুলিশ ষ্টেশন-১টি, এতিম খানা-২টি, স্বাস্থ্য হাসপাতাল ১টি (৫০ শয্যা বিশিষ্ট), বে-সরকারী হাসপাতাল-২টি, বাস টার্মিনাল-১টি, সুপার মার্কেট-১৬টি, বাজার-৩টি, কবর স্থান-৪টি, মুক্তিযোদ্ধা অফিস-১টি, মসজিদ-৭২টি, হাট বাজার-১টি, মন্দির-১৪টি, শ্মাশ্বান-৩টি, কমিউনিটি সেন্টার-২টি, রেজিষ্ট্রাট ক্লাব-৩টি, ক্লিনিক-৬টি, পরিবার কল্যান-১টি, ঈদগাহ মাঠ-১৮টি, ইপিআই সেন্টার-১৩টি, এনজিও অফিস-১৫টি, সড়ক বাতি-৭৯৩টি, ব্রিজ-৫টি, কালভাট-৬৪টি, মোট সড়কের দৈর্ঘ্য-৫২.২৯ কিলোমিটার, কাঁচা রাস্তা-৩২.১৩ কিলোমিটার, সেমি পাকা-১০.২৭ কিলোমিটার, পাকা রাস্তা-৯.৮৯ কিলোমিটার, মোট ড্রেনের দৈর্ঘ্য-২৮.০৪ কিলোমিটার, কাঁচা ড্রেন-১৪.০২ কিলোমিটার, আরসিসি ড্রেন-৯.০২ কিলোমিটার, ব্রিক ড্রেন-৩.০০ কিলোমিটার, প্রাইমারী খাল/ড্রেন-২.০০ কিলোমিটার। বতমানে এই পৌরসভায় বিশ্ব ব্যাংক সহায়তা পুষ্ট মিউনিসিপ্যাল গভারন্যান্স এ্যান্ড সার্ভিসেস প্রজেক্ট(MGSP), গুরুত্বপূন নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প(IUIDP), বার্ষিক উন্নয়ন সহায়তা তহবিল(ADP), বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবতন ট্রাষ্ট ফান্ড(BCCTF) এর আওতায় বিভিন্ন প্রকল্প চলমান আছে। প্রকল্পের কাজ শেষ হলে সড়ক অবকাঠামো ও পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থার অভূতপূব উন্নয়ন সাধিত হবে। পৌর বাসীর সার্বিক সহায়তা অব্যাহত থাকলে অতি অল্প সময়ে গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভা মডেল পৌরসভায় উন্নীত হবে।

পর্যটন ও ঐতিহাসিক স্থান


Top